Author: প্রতিবিম্ব প্রকাশ

মুক্ত আকাশ সেলিনা পারভীন ডানা মেলে উড়বো দুজন, মুক্ত আকাশ মুক্ত বিহন। দূর অজানায় থাকবে মন, ভাববে তখন মুক্ত মন। নীল ঘামে চিঠি ভরে, ছেড়ে দিবে আকাশ পানে। উড়ে যাবে মন পাবোনে, নায়ের মাঝি খুলবে চিঠি, লিখা আছে ভালোবাসি। হাসবে তখন চিঠি পড়ে, নায়ের মাঝি খিল খিলিয়ে। মুক্ত বাতাসে মন মাতিয়ে, গাইবে গান তালে তালে। তাই না দেখে দলে দলে, নাচবে সবাই বাঁশির সুরে, মন মাতিয়ে, মন মাতিয়ে।

আরো পড়ুন

কেমনে আলো দিবে তাছলিমা আক্তার মুক্তা ঝলঝল করা চাঁদটার আজকে আলো গেছে নিবে, আকাশ থেকে দূরে থাকলে কেমনে আলো দিবে? চাঁদের বুঝি জ্বর হয়েছে শুয়ে কাঁটায় বিছানায়, আলো ছাড়া জোছনার চাঁদ কেমনে তারে মানায়। ডাক্তার এসে চাঁদের বুঝি জ্বর সারিয়ে তুলবে, জোছনা ছড়িয়ে গোল চাঁদটা হেসে কথা বলবে। চাঁদের কিরণ গায়ে মেখে বন্ধু হবো তার, জীবনটাকে আলোকিত করবে চাঁদ বন্ধু আমার ।

আরো পড়ুন

আক্ষেপ আয়েশা আহমদ জাহান আঁখি জীবনটা যদি আবার নতুন করে শুরু করতে পারতাম, তবে নিজেকে নিজের জীবনকে শুধরিয়ে নিতাম, শুধু সবাইকে ভালোবেসেছি, আদর, মায়ায় বেঁধেছি। মাঝে মধ্যে একটু শাসন জরুরি ছিল, শক্তভাবে কিছু সিদ্ধান্ত নিজে নিতে হতো, তাহলে জীবনে কষ্ট, দুঃখটা কম হতো। ভালোবাসায় ভিজে নয়, সুবিন্যস্ত সঠিক মতই প্রকাশ করতে হয়। কিছুটা আবেগ কমিয়ে বিবেককে জাগ্রত করতে হতো, তবে জীবনের আনন্দ ছন্দ স্থায়ী হতো, হৃদয়টা টালমটাল হতো না, একতরফা ভালোবেসে নিজেই কষ্টটা কুড়াতে হতো না, অপর প্রান্তের মানুষের মন ও একটু হলে ও সিক্ত হতো, ভালোবাসার মায়ায় জড়িয়ে বেঁধে রাখতো হৃদয়ের আদর সুন্দর সুখী একটা স্বপ্নের নীড়ে বাস করতাম,…

আরো পড়ুন

১) স্মৃতিগুলো আজও জীবন্ত স্মৃতিগুলো আজও জীবন্ত কড়া নাড়া দেয় হৃদ সাগরে তাইতো __ বক্ষে দাহবোধ নিয়ে বাচি হাসিমুখে। আঁখি মেলে দেখি যবে প্রতি মুহূর্তে তোমার বদলে যাওয়ার দেখি রূপ তবু নাহি হতাশ হই বারংবার আঁখি জলে ভরে আড়ালে মুছে ফেলি দু আঁখির জল। এ রংহীন জীবনে কোন এক গোধূলী লগ্নে যদি দেখা হয়ে যায় সেদিন কথা বলবে অভিমান আর নীরবতা। আমার নীরব কান্না কেউ বোঝেনি আঘাত জমিয়ে জমিয়ে গড়েছি জলাশয় অভিমানের পাহাড় জমেছে হৃদয়ে কেউ অনুভব করেনি। সবকিছুর ইতি হয় যদি স্মৃতি তবে স্মৃতি থাকে চিরস্থায়ী মধুর স্মৃতিগুলো মনে পড়ে যবে হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয় তবে সুখ নাহি দিতে পারিলে…

আরো পড়ুন

কত দূর আছো জানি না রাহনামা শাব্বির চৌধুরী কতদূর আছ জানি না তবু কেন এত কাছে মনে হয় আকাশের সীমানা ভেঙে পৃথিবীর বুকে কি আসতে পারো? ধূসর পৃথিবীর মায়াময় রং বনে বসবো দুজনে নিরব আঁধার ছিড়ে মালা গেঁথে গেঁথে কইবো কথা যার যে ইচ্ছে বলুক সুহাস্য বদনে। গন্ডির রেখাপাত ধুয়ে মুছে যাক ছিঁড়ে ফেলে দিতে চাই পুরনো যত বন্ধন নতুন সাজে সাজাবো আমাদের প্রিয় ঘর। ঘামঝরা মৌন মিছিলের আদলে জোয়ারের টানে, ফুঁসবে নদী, মেঘ ঢেকে দিবে চাঁদ বসুধার তটে একাকী দাঁড়িয়ে। আমি আছি তুমি কি আসবে অন্ধকারছন্ন অমাবস্যা পেরিয়ে শুধু আমারই কাছে।

আরো পড়ুন

ভালোবাসা তারা মাহাত জীবন থেমে থাকে না আজীবন, বাঁচা র সুখ নাবলা, কথা সব ঠিক রামধনু হতে পারি কিন্তু ভিতরে আমার ভালোমানুষ মনটা কাঁদে একবুক আশা আর সোহাগ জল মিলে মিশে ধ্যাৎ-তেরি তারপর, ঘর, সংসার পাওয়া না পাওয়ার, হিসেবে, মিলে গেলে, শান্তি না মিলে গেলে সোহাগ জল শুকিয়ে ডিভোর্স এর কাঠ গড়ায়, মরুভূমি। তবে তোমার চোখের দিকে তাকিয়ে,আজ আমি অপেক্ষা-ই আমার অবুঝ ভালবাসা, পড়ন্ত বেলায় তোমার, দেখতে আসা মিষ্টি র প্যাকেট। পশ্চিমবঙ্গ। ভারত।

আরো পড়ুন

সংসারের দীপ” প্রহ্লাদ কুমার প্রভাস (pk) বাবা মানে মুক্ত সকাল, বৃষ্টির দিনে ছাতা। বাবা মানে সোনালী বিকেল, মুক্ত পায়ে হাঁটা। বাবা মানে আঁধার ঘরের জলন্ত এক প্রদীপ। বাবা মানে,কোটি নক্ষত্র আজীবন যা সংসারেতে জ্বালিয়ে রাখে দীপ।। জেলা: সাতক্ষীরা।

আরো পড়ুন

আসছে… কবি মো. মাহাতাব উদ্দিন-এর কাব্যগ্রন্থ: গিরি দাবানল বইয়ের ধরন: কাব্যগ্রন্থ বইয়ের নাম: গিরি দাবানল বইয়ের লেখক: মো. মাহাতাব উদ্দিন প্রচ্ছদ: মো. মাহাতাব উদ্দিন প্রকাশক: প্রতিবিম্ব প্রকাশ প্রকাশকাল: একুশে বইমেলা ২০২৫ বিনিময় মূল্য: ২২০ আইএসবিএন: : 978-984-98974-7-7 সৃজনশীল লেখকের ঠিকানা: ____________________ প্রতিবিম্ব প্রকাশ অফিস/শো-রুম: বাড়ি ১১, সড়ক ০৩, সেক্টর ৬, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০। ফোন: ০১৭১৫৩৬৩০৭৯/০১৮২৬৩৯৫৫৪৯ পেইজ: প্রতিবিম্ব প্রকাশ-protibimboprokash ওয়েব: www.protibimboprokash.com

আরো পড়ুন

রবীন্দ্র উত্তর আধুনিককালের কবিদের মধ্যে যিনি শব্দচয়নে, জীবনবোধে, শব্দালংকারের নান্দনিকতায়, বর্ণনায় অসামান্য আর ধ্রুপদী, তিনি কবি আল মাহমুদ। যিনি দীর্ঘ সময় ধরে কবিতার খাতায় এঁকেছেন বাঙালিয়ানার এক চিরায়ত ছবি। বাংলা সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ কবিদের দলে তার নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে এই কথা নিঃসন্দেহে বলা যায়। কালের কলসের পরে ‘সোনালী কাবিন’ কাব্যগ্রন্থটি একটি মাস্টারপিস হিসেবেই সমাদৃত হয়েছে, এমনকি কবির একচোখা সমালোচক ও নিন্দুকদের মাঝেও। এই কাব্যগ্রন্থটি অনুবাদ হয়েছে অনেকগুলো ভাষায়। এতে প্রতিটি কবিতার শব্দ ব্যবহারের স্বতঃবেদ্য স্বাভাবিকতা এবং বিশ্বাসের অনুকূলতা নির্মাণে তিনি নিঃসংশয়ে আধুনিক বাংলা ভাষায় অন্যতম কবি। আর এমন কবিই উচ্চারণ করেন: আমরা তো বলেছি আমাদের যাত্রা অনন্ত কালের। উদয় ও…

আরো পড়ুন

চলে গেলেন কবি মাকিদ হায়দার, পাবনায় দাফন। কবি মাকিদ হায়দার (৭৭) আর নেই। গতকাল বুধবার সকালে ঢাকার উত্তরার নিজ বাসায় শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। সতীর্থ এবং সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য কবি মাকিদ হায়দারের মরদেহ বাংলা একাডেমিতে নেওয়ার কথা থাকলেও সেই পরিকল্পনা বাদ দেওয়া হয়েছে। বুধবার চাকরিতে ‘কোটা সংস্কার’ আন্দোলনের জন্য রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে অবরোধ থাকায় ঢাকায় জানাজার পর মাকিদ হায়দারের মরদেহ দেশের বাড়ি পাবনায় নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানিয়েছে তার পরিবার। বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকার উত্তরায় নিজের বাসায় মারা যান কবি মাকিদ হায়দার। তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন ছোট ভাই আরিফ হায়দার। কবির বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। তিনি…

আরো পড়ুন